অনলাইন কেনাকাটার ক্ষেত্রে কিছু সতর্কতামুলক টিপস

কিছুদিন আগেও কোন জিনিসপত্র কিনতে হলে আমাদের  একমাত্র উপায় ছিল বাজারে বা কোন শপিংমলে যাওয়া। এবং প্রয়োজনীয় পণ্যটি দেখে শুনে কিনে বাড়ি ফেরা। কিন্তু বর্তমান যুগ হচ্ছে আধুনিক যুগ।আর এই আধুনিকতার ছোঁয়া আমাদের কেনাকাটায় লেগেছে। আমাদের এখন  নিত্য প্রয়োজনীয় সকল পণ্যই অনলাইনের মাধ্যমে কিনতে পারছি।  এবং অনলাইন শপিংয়ের জন্য রয়েছে বিভিন্ন ওয়েবসাইট। যাদের সাথে আমরা খুব সহজেই পণ্য ক্রয় করতে পারি। তারা হাজার হাজার  পণ্যের পসরা সাজিয়ে রেখেছে অনলাইনে। বর্তমানে এমন কোন জিনিস নেই যা অনলাইনে পাওয়া যায় না।  এমন কোন প্রয়োজনীয় পন্য এখন নেই যা অনলাইনে পাওয়া যায় না। বর্তমানের মানুষ সাধারণত ব্যস্ততা এবং অলসতার কারনে বাজারে গিয়ে কোন কিছু কেনাকাটা করার চাইতে অনলাইনে শপিং করাই বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে। এখনকার অনলাইন শপিং সাইট গুলোতে আপনি কোন জিনিস অর্ডার করলে তারা আপনার বাড়ি পর্যন্ত এসে পণ্য পৌঁছে দিয়ে যায়। এর পরেও আমাদের অনলাইনে কেনাকাটার বিষয়  কিছু সমস্যা থেকে যায় এবং এর থেকে আমাদের কিছু সচেতনতা প্রয়োজন রয়েছে। আমি আপনাদের কাছে তুলে ধরব এ সকল বিষয়-

বর্তমান যুগে অনলাইন শপিং খুবই জনপ্রিয় হয়ে  উঠায় কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা নকল এবং কম দামি  পন্যের পসরা সাজিয়ে বসেছে। যেখানে বিভিন্ন প্রকার নকল পণ্য যে গুলো দেখতে হুবহু আসল পণ্যের মত। কিন্তু মূলত মানের দিক থেকে আসল  পণ্যের ধারেকাছেও থাকেনা এসব পণ্য। তাই তারা এ সকল পণ্য দিয়ে মানুষকে ধোকা দেওয়ার মাধ্যমে তাদের কাছ থেকে অর্থ নিয়ে নিচ্ছে। তাই এ বিষয়ে আমাদের খুবই সতর্কতার সাথে কেনাকাটা করা উচিত।

বর্তমানে অনলাইন শপিং এর জনপ্রিয়তার কারণে নিত্য নতুন অনলাইন শপিং প্লাটফর্ম তৈরি হচ্ছে। কিন্তু তারা শুধুমাত্র ব্যবসায় লাভের জন্য এসব করছে। ভোক্তার কাছে গুণগত মানসম্পন্ন পণ্য এবং সর্বোচ্চ সেবা পৌঁছে দেয়ার মত কোন ত্যাগই তাদের মাঝে নেই। এছাড়াও অনেক ফেসবুক পেজের মাধ্যমে অনলাইন শপিং এর কাজ হয়।  যারা নিত্যনতুন পেজ তৈরি করে এখানে বিভিন্ন পন্য  বিক্রি করে থাকে। এদের মধ্যে কিছু কিছু আছে  ভুয়া যারা আপনাকে  আপনার প্রয়োজনীয় পণ্য দেওয়ার নাম করে আপনার থেকে টাকা নেবে ঠিকই কিন্তু পন্য ডেলিভারি দেবে না। তাই এই সকল প্রতারক চক্রের হাত থেকে বাঁচতে জেনেশুনে এবং ভালোভাবে খোঁজ নিয়ে তারপরে তাদের থেকে পণ্য ক্রয় করুন। এবং অনলাইনে কেনাকাটার জন্য সব সময় ক্যাশ অন ডেলিভারি সার্ভিস ব্যবহার করুন। এক্ষেত্রে ডেলিভারি পর্যায়ে আপনার পণ্য হারিয়ে গেলে বা ক্ষতিসাধন হলে আপনার আর্থিক ক্ষতির সম্ভাবনা থাকে না।

জনপ্রিয় এবং পরিচিত অনলাইন শপিং প্লাটফর্ম থেকে পণ্য কিনুন। যারা দীর্ঘদিন ধরে ভালো মানের সেবা প্রদান করে আসছে। তবে নতুনদের থেকে পণ্য কিনতে হলে আপনি বিভিন্নভাবে তাদের বিষয়ে খোঁজ নিয়ে দেখতে পারেন। যেমন ফেসবুকে অনেক গ্রুপ আছে যেখানে অনলাইন কেনাকাটা নিয়ে বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মের রিভিউ প্রদান করে বিভিন্ন ব্যক্তি। তারা ঐসকল শপিং প্ল্যাটফর্মের শপিং করার মাধ্যমে তাদের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা তুলে ধরে গ্রাহকের মাঝে। এবং এই অভিজ্ঞতার ভালো এবং খারাপ দিক বিবেচনার মাধ্যমে আপনি তাদের থেকে শপিং করবেন কি করবেন না তাই স্থির করুন।

বিভিন্ন শপিং সাইট এর বিজ্ঞাপন আমরা দেখতে পাই ফেসবুক বা বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তারা অনেক রমরমা বিজ্ঞাপন দেয় পন্যটি বিক্রয়ের ক্ষেত্রে। তবে সকল অফার গ্রহণ এর আগে আপনাকে অবশ্যই জেনে নিতে হবে পণ্যটির মান এবং মূল্যের ব্যাপারে।

এবার আসা যাক পণ্যের মূল্যের ব্যাপারে, অনলাইন শপিং প্ল্যাটফর্মগুলোতে একই পণ্যের এক এক রকম দাম দেওয়া থাকে। ধরুন একটি শপিং প্লাটফর্মে একটি পণ্যের মূল্য 1000 টাকা। আবার অন্য একটি সাইটে দেখবেন একই পণ্য বিক্রি হচ্ছে 800 টাকায়। অথবা দেখবেন বাজারে এর মূল্য আরো কম হতে পারে। তাই পণ্য ক্রয়ের আগে পণ্যের মূল্যের বিষয়ে ভালোভাবে খোঁজ খবর নিয়ে তারপরে পণ্যটি ক্রয় করুন।

এই সকল টিপস মেনে চললে অনলাইন শপিং এর ক্ষেত্রে ধোঁকাবাজির হাত থেকে কিছুটা হলেও রেহাই পেতে পারেন। তাই সকলে এই সব বিষয় অবশ্যই মাথায় রেখে তারপর এই কোন কিছু কেনাকাটা করবেন অনলাইন থেকে। তবে আমি কখনোই বলবো না যে সকল অনলাইন শপিং প্লাটফর্মে খারাপ। কারণ  অনেক শপিং প্লাটফর্ম আছে যারা গুণগতমান পণ্যের মূল্য এবং গ্রাহক সেবার দিক দিয়ে খুবই এগিয়ে। তারা এ সকল বিষয়ে কখনোই কমতি রাখে না। তাই জেনে শুনে এবং বুঝে তারপরে কোন পণ্য ক্রয় করবেন।

Similar Posts:

    None Found

(Visited 18 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *