আর্টিকেল রাইটিং হতে পারে আপনার আয়ের উৎস

লেখালেখির দক্ষতা আমাদের সবার মাঝেই কমবেশি রয়েছে। এছাড়া লেখালেখি করার মাধ্যমে ব্যক্তির জ্ঞান বৃদ্ধি পায়। এটি একটি সম্ভাবনাময় পেশা। এবং এর চাহিদাও ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে।। লেখালেখি কে আপনি আপনার ইনকাম এর উৎসে পরিণত করতে পারেন। বর্তমানে আর্টিকেল রাইটিং একটি চমৎকার পেশা। বিভিন্ন ওয়েবসাইটে আর্টিকেল লিখে মোটামুটি ভাল পরিমাণ উপার্জন করতে পারেন। এরকম অনেক ওয়েবসাইট আছে যেখানে আপনি আর্টিকেল লেখার মাধ্যমে উপার্জন করতে পারেন।

আপনি ব্লগিং এর মাধ্যমেও অর্থ উপার্জন করতে পারেন। লেখালেখি করতে আপনার বিশেষ কোনো জ্ঞানের প্রয়োজন হবে না। চাইলে খুব সহজেই আর্টিকেল লেখা সম্ভব। গুগল এবং বিভিন্ন ওয়েবসাইটে সার্চ করে আপনি আর্টিকেল লেখার উপর ধারনা অর্জন করতে পারেন।মোটামুটি ৪-৫ দিন একটু ঘাটাঘাটি করলে আপনি এ বিষয়ে একটা ভালো ধারনা অর্জন করতে পারেন। লেখাপড়া করা অবস্থায় ইনকামের একটি ভালো মাধ্যম এই লেখালেখি। এক্ষেত্রে আপনি নিজেই ব্লগিং করতে পারেন। ব্লগিং করতে আপনার তেমন কোন খরচ হবে না। গুগল সহ আরো অনেক কোম্পানি আছে যারা আপনাকে ফ্রিতেই লেখালেখি করার সুযোগ দেবে। গুগলের ব্লগার হচ্ছে এমন একটি প্লাটফর্ম যেখানে আপনি ফ্রি ব্লগ সাইট তৈরি করে লেখালেখি শুরু করতে পারেন। সে ক্ষেত্রে আপনার চিন্তা ভাবনা হতে হবে ইউনিক। চাইলে ব্লগারের ফ্রী ডোমেইন নিয়েও কাজ করা যায় বর্তমানে গুগোল ব্লগস্পটেও অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভ করে। এছাড়া আপনি চাইলে স্বল্প খরচে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে লেখালেখি শুরু করতে পারেন। এর জন্য প্রথমে আপনাকে ডোমেইন এবং হোস্টিং কিনে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে। প্রথম দিকে একটু খরচ হলেও আপনি পরবর্তিতে এর থেকে ভালো পরিমাণ উপার্জন করতে পারবেন। আপনার লেখালেখির জন্য গুগোল এ সার্চ করতে পারেন। ব্লগিং করার জন্য আপনি প্রথমে আপনার ব্লগটি কোন বিষয়ের উপর করবেন তা নির্ধারণ করুন। বিষয়টিতে আপনার পরিপূর্ণ ধারণা না থাকলে বিভিন্ন ব্লগ বা ফোরাম সাইটে ভিজিট করার মাধ্যমে আপনি তাদের লেখার কৌশল এবং এর উপর ধারণা নিতে পারেন।আপনি ভালো মানের পোস্ট করতে পারলে ভিজিটর সংখ্যা খুব দ্রুত বৃদ্ধি পাবে। । আপনি মোটামুটি ৪০ থেকে ৫০ টি আর্টিকেল লিখে এবং দুই লক্ষের মত ভিজিটর নিয়ে এডসেন্স এর জন্য আবেদন করতে পারেন। এছাড়াও আরো অনেক এড নেটওয়ার্ক সাইট আছে যাদের বিজ্ঞাপন আপনার সাইটে বসিয়ে ও আপনি আয় করতে পারেন।

পাচ থেকে ছয় মাস সময় এর মধ্যে আপনি একটু পরিশ্রম করলেই ইনকাম করতে পারবেন।

অপরদিকে আপনি যদি চান এত সময় অপেক্ষা না করে ইনকাম করতে তাহলে আপনি অনেক সাইট পাবেন যেখানে আর্টিকেল লেখার বিনিময়ে টাকা পাওয়া যায়। এছাড়াও বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে আর্টিকেল লেখার কাজ করতে পারেন। ইংরেজিতে ভালো দক্ষতা সম্পন্ন হলে আপনি ভালো পরিমান ইনকাম করতে পারবেন। বিষয়টি প্রথম দিকে একটু কষ্টকর হলেও যখন আপনি এটিকে আয়ত্বে নিয়ে আসতে পারবেন তখন আপনার নতুন নতুন আর্টিকেল লেখার দক্ষতা তৈরি হবে এবং খু্ব দ্রুত সময়ের মধ্যে মান সম্মত আর্টিকেল লিখতে সক্ষম হবেন।আপনি চাইলে এই সাইটেও লেখালেখি করে উপার্জন করতে পারেন এখানে প্রতি পোষ্টের জন্য আপনাকে নির্ধারিত পরিমাণ অর্থ প্রদান করা হবে।

 

Similar Posts:

    None Found

(Visited 12 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *