আ্যাপল আইমেসেজের ত্রুটি ধরিয়ে দিল গুগল

প্রযুক্তি অন্যতম দান হচ্ছে মোবাইল ফোন।আর সেই দানকে পরিপূর্ণ করেছে স্মার্ট ফোন।স্মার্ট ফোন গুলো বর্তমান মানুষের সকল চাহিদা পুরন করছে একদম পরিপূর্ণ রুপে।এই স্মার্ট ফোন গুলো চালাতে প্রয়োজন অপারেটিং সিস্টেম। বর্তমানে মোবাইল ফোনের উল্লেখযোগ্য অপারেটিং সিস্টেম হচ্ছে এন্ড্রয়েড এটি একটি ওপেন সোর্স অপারেটিং সিস্টেম হওয়ার কারণে যে কোন কোম্পানি এই অপারেটি সিস্টেম তাদের ফোনে ব্যবহার করতে পারে । এবং মার্কিন পণ্য নির্মাতা ব্রান্ড অ্যাপলের রয়েছে ম্যাক অপারেটিং সিস্টেমটি ওপেন সিস্টেম না হওয়ার কারণে অন্যরা ব্যবহার করতে পারে না এটি।এতে শুধুমাত্র অ্যাপেলের মোবাইল গুলোতে ব্যবহার করা হয়। এটি সবার জন্য উন্মুক্ত না হওয়ার কারণে কাউকে যদি একবার এটি কুষ্টম চালাতে হয় তাকে অবশ্যই আইফোন কিনতে হবে।অ্যাপলের মোবাইল ফোন হচ্ছে আইফোন তবে আইফোনের বিভিন্ন  মডেল আছে।এবং আইফোনের মূল্য অনেক বেশি হওয়ার কারণে যে কোন সাধারন ব্যবহারকারী ব্যবহার করতে পারে না এটি। অপরদিকে অ্যান্ড্রয়েড ওপেন সোর্স অপারেটিং সিস্টেম হওয়ার কারণে টি ব্রান্ড এবং নন ব্রান্ড উভয় মোবাইল ফোনেই ব্যবহার করা হয়। তবে ক্রেতা তার সাধ্যের মধ্যে একটি এন্ড্রয়েড ফোন নিতে পারে। এর কারনে এন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম এর ব্যবহারকারীর সংখ্যা অনেক গুণ বেশি। তার জন্য এটা ভাবা ভুল হবে যে অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম কোন অংশে অ্যাপলের থেকে পিছিয়ে বরংচ ফিচারের দিক দিয়েও অ্যান্ড্রয়েড অনেক এগিয়ে আছে অ্যাপল থেকে।

সাম্প্রতিক কালে অ্যান্ড্রয়েডের একটি শনাক্তকারী টীম আইফোনের আই মেসেজের একটি বড় ত্রুটি শনাক্ত করতে সক্ষম হয়েছে। তারা বলেন সমস্যাটি খুবই জটিল।কারন এর ফলে যেকোনো ফাইল অন্য মোবাইল দিয়ে সরিয়ে ফেলা যাবে এতে কোন প্রকার হ্যাকার এর প্রয়োজন পড়বে না।

তবে সমস্যাটি জানার পরে অ্যাপল ত্রুটি ঠিক করেছে এবং এপ্সসটি সকল ব্যবহারকারীকে অ্যাপটি দ্রুত আপডেট দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে  অ্যাপেল কোম্পানি।এছাড়া আয়াতুল কোম্পানি জানিয়েছে একটা আপডেট করার পরে হ্যাক হওয়ার কোনো ঝুঁকি থাকবে না।

গুগোল এর ত্রুটি শনাক্ত করী টীম অ্যাপল এর অপারেটিং সিস্টেম এর আরো ছয়টি ত্রুটি জানিয়ে দিয়েছে তাদের কিন্তু তারা এখন পর্যন্ত এ নিয়ে কোনো কাজ করেনি এসকল সমস্যার সমাধানের লক্ষে।

সারে বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক অ্যালেন এডওয়ার্ডস জানান , এটা আসলেই বেশ অস্বাভাবিক।কারন এর ফলে ব্যাবহারকারীর অনেক ফাইল সরিয়ে ফেলতে পারত যে কেউ।যা একজন ব্যাবহারকারির জন্য সুরক্ষা সংক্রান্ত হুমকির স্বরুপ।

(Visited 35 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *