ক্রিপ্টোকারেন্সি মাইনিং অ্যাপস পাবলিশ বন্ধ করলো প্লেস্টোর

বর্তমানে মোবাইল ফোনের  দুনিয়ার  সর্বোচ্চ  সুবিধাযুক্ত অপারেটিং সিস্টেম হচ্ছে এন্ড্রয়েড। এটি গুগলের তৈরি অপারেটিং সিস্টেম। বর্তমানে বেশিরভাগ ফোনে এন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমচালিত। অ্যান্ড্রয়েড এর গ্রাহক সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার কারণ হচ্ছে গ্রাহকের সর্বোচ্চ সুবিধা নিশ্চিত করণের মাধ্যমে তারা এ স্থান দখল করে নিয়েছে। এবং তারা প্রতিনিয়ত এই অপারেটিং সিস্টেমের আপডেটের কাজ করেই চলছে। অ্যান্ড্রয়েডের বেশ কয়েকটি ভার্সন রয়েছে। এর সর্বশেষ ভার্সন হচ্ছে অ্যান্ড্রয়েড পাই। এবং অ্যান্ড্রয়েড এর সফটওয়্যার ইন্সটলের জন্য রয়েছে গুগল প্লে স্টোর এখানে সকল ধরনের সফটওয়্যার পাওয়া যায়। এছাড়া এটি এমন একটি মাধ্যম যেখানে যে কোন সাধারণ ব্যক্তি এন্ড্রয়েড সফটওয়্যার তৈরি করে তা বাজারজাত করতে পারে। এবং মুনাফা অর্জন করতে পারে। তবে অ্যাপ্স পাবলিশ এর ক্ষেত্রে তাদের রয়েছে কড়া নজরদারি। এখানে চাইলে আপনি যেকোনো ধরনের অ্যাপ পাবলিশ করতে পারবেন না। তাদের নীতিমালা বহির্ভূত কোনো অ্যাপস হলে তারা সেটি বন্ধ করে দিবে এবং আপনাকে তা পাবলিশ করার অনুমতি প্রদান করবে না। আর এ কারণেই প্লে স্টোর তাদের নীতিমালা প্রায় সময়ই বদলে থাকে। তারা গ্রাহকের সর্বোচ্চ সুবিধা নিশ্চিত করণের লক্ষ্যে এ সকল করে থাকে।তারা সব সময় চায় গ্রাহককে সর্বোচ্চ মানের সুবিধা প্রদান এবং সুরক্ষা প্রদান করতেন। আর এরই ধারাবাহিকতায় তারা প্লে স্টোর থেকে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ক্রিপ্টো কারেন্সি মাইনিং অ্যাপস।

তারা তাদের স্টোর থেকে সকল প্রকার ক্রিপ্টো কারেন্সি মাইনিং অ্যাপস বন্ধ করে দিয়েছে। এর কারণ হিসেবে তারা জানিয়েছে, ক্রিপ্টো কারেন্সি মাইনিং অ্যাপস মোবাইলের জন্য ক্ষতিকারক।

ক্রিপ্টো কারেন্সি মাইনিং অ্যাপস মূলত কাজ করে মোবাইল অথবা কম্পিউটারের প্রসেসিং ইউনিট এর ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে কারেন্সি মাইনিং করে। এবং এটি সব সময় মোবাইলের প্রসেসর কে চালু রাখে যার ফলে এর থেকে যা মাইনিং হয় তা এপ্স কোম্পানি এক অংশ নিয়ে আপনাকে কিছু প্রদান করে। তবে এর থেকে ব্যবহারকারীরা যা পায় তার চাইতে ক্ষতির পরিমাণই বেশি হয়। কিন্তু আমরা সেটা বুঝে উঠতে পারিনা।

আর এ কারণেই প্লে স্টোর তাদের স্টোর থেকে ক্রিপ্টোকারেন্সি মাইনিং এপ্স বন্ধ করে দিয়েছে। তাই আপনি চাইলেও প্লে স্টোরে আর কোন প্রকার মাইনিং অ্যাপস খুঁজে পাবেন না। তবে আপনার অন্য সব থেকে ডাউনলোড করে চালাতে পারবেন।

এছাড়াও তারা আরও কিছু নীতিমালা প্রণয়ন করেছে। যেমন এক  ডেভলপার একই ধরনের অ্যাপস একাধিক পাবলিশ করতে পারবে না। উদাহরণস্বরূপ বলা যায় যেরকম কোন মিউজিক প্লেয়ার একটি ডেভলপার বিভিন্ন নামে একাধিক মিউজিক প্লেয়ার পাবলিশ করতে পারবে না।

এছাড়া বাচ্চাদের কোন অ্যাপস এর ভিতর কোন প্রকার এডাল্ট কনটেন্ট থাকতে পারবে না। যদি কোনো কারণবশত তারা এরকম পায় তাহলে সাথে সাথে এটি বন্ধ করে দেবে।

গুগল টিম  গ্রাহকের নিরাপত্তার খাতিরে প্রায় সময়ই এরকম সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে।এবং তাদের নীতিমালা বহির্ভূত কোনো কর্মকাণ্ড না ঘটতে পারে।যাতে করে তাদের গ্রাহক সন্তুষ্ট বজায় থাকে।

(Visited 24 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *