মনকে ভালো রাখার কয়েকটি টিপস

মানুষের জীবনে আনন্দ বেদনা সবকিছুই থাকবে। কারণ কোনো মানুষই সারা জীবন হাসি খুশি থাকতে পারে না। আবার দুঃখ ও সারা জীবন মানুষের থাকে না। তবে আমাদের সকলের উচিত হাসিখুশি থাকা। তবে এর পরেও আমাদের সকলের মনেই কখনো না কখনো দুঃখ বা কষ্ট বিরাজ করে। এবং আমাদের মন খারাপ থাকে। কারণে বা অকারণে মন খারাপ হতে পারে। তাই আমাদের সকলের উচিত এসব উপেক্ষা করে হাসিখুশি থাকা।

মন খারাপ বিভিন্ন কারণে হয়। যেমন কোন দুঃখের স্মৃতি মনে পড়লে। কারো সাথে অপ্রত্যাশিত কিছু ঘটলেও মন খারাপ হয়। একাকীত্ব মনের মতো সঙ্গীর অভাবের কারণেও মন খারাপ হতে পারে। মনের মত বন্ধু না থাকলে মন খারাপ হওয়াটাই তো স্বাভাবিক বিষয়। কারণ বন্ধুত্ব এমন একটি জিনিস যার কাছে মনের সকল আনন্দ বেদনা ইত্যাদি শেয়ার করা যায়। তাহলে মন খারাপ থাকলে কিভাবে আমরা সেটিকে ভালো করতে পারি তার কিছু উপায় জেনে নেয়া যাক-

হাসি এটি হচ্ছে সর্ব রোগের মহৌষধ। কারণ আপনি হাসিখুশি থাকলে আপনার মনের সকল দুঃখ দূর হয়ে যাবে। এছাড়া গবেষণায় প্রমাণিত যারা হাসিখুশি থাকে তাদের মানসিক অবস্থা ভালো থাকে। আর মানসিক অবস্থা ভালো থাকলে শরীর সুস্থ থাকে। কোথায় আছে যে হাসিখুশি থাকে তাকে ঈশ্বর ও পছন্দ করে বা ভালোবাসে। তাই আমাদের সকলের  হাসিখুশি থাকা উচিত।

শরীরচর্চা ও আমাদের মনকে ভালো রাখতে পারে। শরীর চর্চার মাধ্যমে আমাদের অবসাদ দূর হয় এবং মনে প্রশান্তি ফিরে আসে। তাই আমাদের সকলের শরীরচর্চা করা উচিত। দুশ্চিন্তা দূর হয়। শরীরচর্চার ফলে এন্ডোরফিন নামক হরমোন উৎপাদিত হয় যা আমাদের মনকে ভালো রাখে।

হঠাৎ মন খারাপ হয়ে গেলে গান শুনতে পারেন। গান আমাদের মনকে আনন্দিত করে। আপনার পছন্দের গান যদি আপনার মন খারাপ এর ভেতর আপনি শুনেন। তাহলে শত মন খারাপ এর ভিতরে আপনার মন ভাল হতে বাধ্য। গান আমাদের শারীরিক এবং মানসিক বিভিন্ন সমস্যা দূর করে।

মন খারাপের সময় কখনও একা থাকার চেষ্টা করবেন না। কারন একাকীত্ব মনকে আরো খারাপ করে তুলতে পারে। তাই মন খারাপের সময় পরিবার পরিজন বন্ধুবান্ধব এবং পছন্দের মানুষদের সাথে সময় কাটান।

 

তাহলে মনের অজান্তে আপনার খারাপ মন ভালো হয়ে যাবে। এছাড়া মন খারাপের সময় আপনি পুরনো দিনের ডায়েরী অথবা অ্যালবাম   ঘাটতে পারেন। তাহলে আপনার পুরনো দিনের অনেক আনন্দের স্মৃতি মনে পড়ে। এবং আপনি সে বিষয়ে ভাবতে শুরু করবেন। দেখবেন চটজলদি আপনার মন কেমন উৎফুল্ল হয়ে উঠছে।

যদি আপনার আশেপাশে কেউ না থাকে তাহলে আপনি একা একা ঘরে বসে না থেকে। বাইরে বের হন।  এবং আপনার আশেপাশের কোন  সুন্দর স্থান দিয়ে হেঁটে আসতে পারেন। বা কোন বন্ধুর সাথে একটু আড্ডা দিতে পারেন। এটিও খুব কাজে দেবে।

এছাড়া মন খারাপের সময় আপনি যে সকল কাজ করুন যেগুলো কাজ করে আপনি মজা পান। এই কাজগুলো করতে আপনার খুব ভালো লাগে। হতে পারে সেটি ডায়েরি লেখা। নিজে নিজে একটু গান করা ইত্যাদি। মন খারাপ করে কখনো একা একা বসে থাকবেন না তাহলে মন আরো খারাপ হয়ে যাবে। আপনি যখন মনে করবেন আপনার মনটা খারাপ হয়ে যাচ্ছে তখন সেটাই ভালো করার জন্য সুন্দর একটি পদক্ষেপ নেন। দেখবেন মন খারাপ বা কোন প্রকার অশান্তি আপনাকে গ্রাস করতে পারবে না। আর মন সুস্থ থাকলে শরীর সুস্থ থাকে।

 

Similar Posts:

    None Found

(Visited 72 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *