Shareit কে বিদায় দিন মুক্তি পান শেয়ারিং ঝামেলা থেকে

বর্তমানে আমরা প্রত্যেকেই অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহার করি। এবং বিভিন্ন সময় মানুষের সাথে বিভিন্ন ফাইল শেয়ার করে থাকি। এবং শেয়ার ইট হচ্ছে বর্তমানে একটি জনপ্রিয় ফাইল শেয়ারিং অ্যাপ্লিকেশন। তবে এটি প্রচুর পরিমাণে বিজ্ঞাপন দেখায় এবং ফাইল শেয়ার করতে বর্তমানে খুবই ঝামেলা করে থাকে। তাছাড়া নতুন নতুন আপডেট আসার ফলে এর সাইজ বেড়ে যাচ্ছে। যা কম রেম এবং রমের  ফোনের জন্য সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়। এবং এটি ডাটা বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে ক্রমান্বয়ে  অ্যাপ্লিকেশন টি ভারী হতে।থাকে এবং ফোনের জায়গা নষ্ট করতে থাকে। এবং সবচাইতে বিরক্তিকর হচ্ছে ফাইল শেয়ার করার সময় সব ডিভাইসের সাথে কানেক্ট হতে চায় না। এছাড়াও বহুবিধ ও সমস্যা। এবং অ্যাপ্লিকেশনটি ফ্রি হয় বিজ্ঞাপনের ঝামেলা খুবই। এবং বর্তমানে মেইন পেজে ভিডিও আসা শুরু করেছে।

মাঝে মধ্যে অনেক আপত্তিকর ভিডিও সামনে হাজির হয়। যা একনাগাড়ে বিরক্তিকর ও অসহ্য। তাই আজ আমি আপনাদের শেয়ার করব গুগলের ফাইল শেয়ার করার অ্যাপস। এটি গুগলের হাওয়ায় কোন বিজ্ঞাপন নেই। সাইজ মাত্র 5 এমবি হাওয়াই যে কোন ফোনে খুব ইজিলি চলবে অ্যাপস টি। এবং এটি দিয়ে আপনি অনেক জাঙ্ক ফাইল সহ ফোন কে ক্লিন করতে পারবেন। ফাইল ম্যানেজার এর কাজ করতে পারবেন। এবং ফাইল শেয়ার করতে হবেন খুবই দ্রুত গতিতে। কোন প্রকার সমস্যা ছাড়াই। সফটওয়্যারটির নাম হচ্ছে   Files. এই সফটওয়্যার টি আপনার ফোনে ডিফল্ট অবস্থায় থাকতে পারে। সফটওয়্যার টা ডিফল্ট অবস্থায় না থাকলে ডাউনলোড করতে এখনো ক্লিক করুন।

লিংকে ক্লিক করলে সরাসরি আপনাকে প্লে স্টোরে নিয়ে যাবে। এরপরে সফটওয়্যার টি ইন্সটল দিন। এবং সফটওয়্যার টি ওপেন করুন। যে সকল পারমিশন গুলো আপনি সেগুলো অ্যালাউ করে দিন। তাহলে আপনার সামনে ঠিক এরকম একটি ইন্টারফেস ওপেন হবে। যা আমি স্ক্রীনশট আকারে নিচে দিয়েছি-

আপনার সামনে এরকম একটি পেজ আসবে। নিচে দেখতে পারছেন তিনটি অপশন। ক্লিন,ব্রাউজ  এবং শেয়ার। আপনি এই তিনটি কাজ করতে পারবেন।

ক্লিন অপশনে গেলে আপনি ফোনের কেস ফাইল জাঙ্ক ফাইল ইত্যাদি সহ যে কোন ফাইলকে ডিলিট করতে পারবেন খুব সহজে।

ব্রাউজ অপশন এর মাধ্যমে আপনি ফাইল ম্যানেজার ব্রাউজ করতে পারবেন। এবং অ্যাপটি গুগলের হয় ভেতরের ইন্টারফেসটি অনেক সুন্দর। যা আপনি নিজেই দেখতে পাচ্ছেন।

তিন নম্বর অপশন আছে শেয়ার। এখান থেকে আপনি যেকোন ফাইলকে শেয়ার করতে পারবেন খুব সহজে। তবে আপনার বন্ধু বা যার সাথে আপনি ফাইল শেয়ার করতে চাচ্ছেন তারপরেও এই সফটওয়্যারটি থাকা লাগবে। শেয়ার অপশনে গেলে নিচের ছবির মত আসবে।

আপনি যদি কোন ফাইল গ্রহণ করতে চান তাহলে রিসিভ আর কোন ফাইল দিতে চাইলে সেন্ড অপশনে ক্লিক করুন। যা আগে আমরা যারা ফাইল শেয়ার করেছে তারা সকলেই জানে যে কিভাবে ফাইল শেয়ার অথবা রিসিভ করতে হয়।

তাহলে এখন গুগোল এর সাথে নিন ফাইল শেয়ারিং এর দুর্দান্ত পারফরম্যান্স।

Similar Posts:

(Visited 22 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *