কিডনির সমস্যার হাত থেকে রক্ষা পেতে মেনে চলুন এই টিপস গুলো

কিডনি কে আমাদের শরীরের ছাকনি বলা হয়। মানব দেহের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ হচ্ছে গ্রেড কিডনি। কিডনি আমাদের শরীর থেকে বিভিন্ন ধরনের বিষাক্ত পদার্থ এবং রোগজীবাণু পরিশোধনের মাধ্যমে শরীর থেকে বের করে দেয়।

কিডনি সমস্যা থেকে রক্ষা পাবার কয়েকটি উপায়

সুস্থ সুন্দর জীবন যাপন করার জন্য কিডনির যত্নের কোন বিকল্প নেই। কারণ আমাদের দেহকে সুস্থ সুন্দর রাখতে কিডনির ভূমিকা অপরিসীম। তবে আমাদের অনিয়মিত খাদ্যাভ্যাস এবং বিভিন্ন ধরনের অনিয়মের ফলে দিনদিন কিডনি তার শক্তি হারিয়ে ফেলছে। কিডনি বিকল হয়ে গেলে শরীর থেকে বর্জ্য পদার্থ বের করে দিতে ব্যর্থ হবে। এবং এ কারণে আমাদের কিডনীর যত্নে সচেতন হওয়া উচিত।

কিডনিকে সুস্থ রাখতে আমাদের যেসকল নিয়ম কানুন মেনে চলা উচিত-

নিয়মিত প্রচুর পরিমাণে পানি পান করা-
নিয়মিত প্রচুর পরিমাণে পানি পান করার ফলে কিডনি সুস্থ এবং সচল থাকে। শুধুমাত্র কি কিডনির সুরক্ষায় পানির প্রয়োজন ? না পানির অপর নাম জীবন! সুস্থ সুন্দর ভাবে বেঁচে থাকতে পানির কোনো বিকল্প নেই। কিডনিকে সুস্থ রাখতে হলে প্রতিদিন অন্তত পক্ষে দুই থেকে তিন লিটার পানি পান করা উচিত।

প্রস্রাব চেপে না রাখা-
অনেকেই আছে দীর্ঘক্ষণ প্রস্রাব চেপে রাখেন। যা কিডনির জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। কারণ এর ফলে মূত্রথলিতে সংক্রমণ দেখা দিতে পারে। এছাড়াও প্রস্রাবের বেগ চেপে রাখলে কিডনি তার কাজ সম্পন্ন করতে বাধাপ্রাপ্ত হয়। যার ফলে কিডনিতে সমস্যা দেখা দিতে পারে।

নিয়মিত ডায়াবেটিস বা ব্লাড প্রেসার পরীক্ষা করুন-
আপনার বয়স যদি চল্লিশের উর্ধ্বে হয় তাহলে বছরে অন্ততপক্ষে একবার আপনার ডায়াবেটিস এবং ব্লাড প্রেসার টেস্ট করান। যদি আপনার ডায়াবেটিস বা ব্লাড প্রেসার এর সমস্যা থাকে তাহলে অবশ্যই এটি কন্ট্রোল রাখার চেষ্টা করবেন।

চিকিৎসকের পরামর্শ ব্যতীত কোনো ওষুধ সেবন না করা-
আমাদের মাঝে অনেকেই আছে শরীরে সামান্য কোনো সমস্যা দেখা দিলে আমরা নিজেরাই ঔষধ সেবন করি। যা আমাদের শরীরের পক্ষে মারাত্মক ক্ষতিকর। এর ফলে ঘটে যেতে পারে বিভিন্ন দুর্ঘটনা। কখনোই চিকিৎসকের পরামর্শ ব্যতীত ঔষধ সেবন করা উচিত নয়। বিশেষ করে ব্যথানাশক ঔষধ কখনোই চিকিৎসকের পরামর্শ ব্যতীত গ্রহণ করা উচিত নয়।

উপরোক্ত সকল বিষয় মেনে চললে আমাদের কিডনি সুস্থ থাকবে। অবশ্যই এসকল বিষয় মেনে চলবেন তাহলে আপনার কিডনি সুস্থ থাকবে এবং বিভিন্ন ধরনের কিডনিজনিত সমস্যার হাত থেকে রক্ষা পাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *